মাগুরার বাণী

মাগুরায় মিথ্যা হত্যা মামলা করার অভিযোগে ৫ জনকে জেলে পাঠিয়েছে আদালত

মাগুরায় মিথ্যা হত্যা মামলা করার অভিযোগে  ৫ জনকে জেলে পাঠিয়েছে আদালত

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

মাগুরায় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানসহ ৮ জনের নামে মিথ্যা হত্যা মামলা করার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় ৫ জনকে সোমবার বিকেলে জেল হাজতে পাঠিয়েছে মাগুরার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত-২ এর বিচারক।

৮ জুন সোমবার বিকেলে এ্যাডভোকেট ইফাত আরা টুম্পা মামলার বরাত দিয়ে জানান, মহম্মদপুর উপজেলার নহাটা বিলুপাড়ার সাইফুল জোয়ার্দ্দারের মেয়ে লাবনি খাতুনের সাথে মাগুরা সদরের বাহারবাগ গ্রামের গোলাম কুদ্দুসের ছেলে আফজাল হোসেনের ২০১৮ সালের ২ এপ্রিল বিয়ে হয়। গত বছরের ২৯ আগষ্ট লাবনি খাতুন তার স্বামীর উপর অভিমান করে গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করে। বিষয়টি নিয়ে লাবনি খাতুনের পিতা সাইফুল জোয়ার্দ্দার তার সহযোগী গোলাম আজমের প্ররোচনায় ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে গত বছরের ৩ সেপ্টেম্বর লাবনির স্বামী আফজাল হোসেন, গোপালগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাজমুল হাসান রাজিব, ইউনিয়ন পরিষদের প্রাক্তন সদস্য ছায়েমউদ্দিন চুন্নুসহ ৮ জনকে আসামী করে মামলা করেন। আদালত মামলাটি তদন্তের জন্য পুলিশ ইনভেস্টিগেশন অব ব্যুরোকে (পিবিআই) নির্দেশ দেন। মামলা তদন্তে হত্যার অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হয়। বিজ্ঞ বিচারক ওই মামলা থেকে গোপালগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ানম্যান নাজমুল হাসান রাজিবসহ ৮ জনকে অব্যহতির আদেশ দেন।

এ আদেশের পর মিথ্যা হত্যা মামলায় হয়রানী ও সম্মানহানীর অভিযোগে মিথ্যা হত্যা মামলার শিকার ছায়েম উদ্দিন চুন্নু বাদী হয়ে একই আদালতে ওই মিথ্যা মামলার বাদী বাহারবাগ গ্রামের সাইফুল জোয়ার্দ্দার(৪৬)সহ তাইব বিশ্বাস (৫০), ওসমান বিশ্বাস (৪৫), আকরাম বিশ্বাস (২৬) করিম বিশ্বাস (৫০) ও গোলাম আজমকে (৩৮) আসামী করে গত ১ ফেব্রুয়ারি মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে মাগুরা সদর থানার অফিসার ইনচার্জকে এজহার হিসেবে নথিভুক্ত করার নির্দেশ দেন। পরবর্তিতে আসামীদের প্রতি গ্রেপ্তার পরোয়ানা জারী হয়। যার প্রেক্ষিতে আসমীরা সোমবার মাগুরার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত-২ এ হাজির হয়ে জামিন প্রার্থণা করেন। বিজ্ঞ আদালত আসামীদের জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে তাদেরকে জেল হাজতে পাঠানোর আদেশ দেন।

এ ঘটনায় আদালত পাড়াসহ সারা দেশে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *