মাগুরার বাণী

মাগুরার শ্রীপুরে ডিজিটাল হ্যাকিং গ্রুপের ১০ সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ

মাগুরার শ্রীপুরে ডিজিটাল হ্যাকিং গ্রুপের ১০ সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

আটক কম্পিউটার সরঞ্জাম

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার চরচৌগাছি গ্রাম থেকে ডিজিটাল হ্যাকিং গ্রুপের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ১০ জনকে আটক করেছে শ্রীপুর থানা পুলিশ। এ সময় অভিযান চলাকালে এই গ্রূপের দলনেতা মহিদুলসহ রাজবাড়ি থেকে আগত কিছু সদস্যসহ সর্বমোট ১০ জনকে ৯ টি ডেস্কটপ, ৯ টি সি পি ইউ, ১০ টি মোবাইল, ৭ টি হার্ডডিস্ক ও ১ টি মডেম উদ্ধার করা হয়।

শ্রীপুর থানা পুলিশের বরাত দিয়ে জানা যায়, আটককৃতরা হলেন-
১.মোঃ মোহিদুল ইসলাম (২০) পিতাঃ মোঃ চাঁদ শেখ সাংঃ চর থানাঃ শ্রীপুর।

২.মোঃ সবুজ শেখ(১৬) পিতাঃ মোঃ আকিদুল শেখ, সাংঃ চর চৌগাছি থানাঃ শ্রীপুর।

৩.মোঃ মিজানুর রহমান, পিতা- আঃ আজিজ শেখ, সাং চর চৌগাছি,থানা – শ্রীপুর।

৪. মোঃ জাহিদুল ইসলাম (২৫),পিতা- চাঁদ আলী শেখ, সাং চর চৌগাছী, থানা- শ্রীপুর।

৫. মোঃ রানা বিশ্বাস(১৮) পিতাঃ মোঃ ফজলে বিশ্বাস,সাংঃ চর চৌগাছী, থানাঃ শ্রীপুর।

৬.হৃদয় বিশ্বাস(১৬) পিতাঃ আতিয়ার বিশ্বাস, সাং চর চৌগাছী থানা – শ্রীপুর।

৭. জয় মাহমুদ(২২) পিতাঃ মোঃ আখিল উদ্দিন, সাং- চর চৌগাছী, থানাঃ শ্রীপুর।

৮, মোঃ শান্ত মোল্লা(১৬) পিতা বকুল মোল্লা, সাং কালিনগর,কচুন্দি, মাগুরা সদর, সর্ব জেলা মাগুরা।

৯. মোঃ সজিব(১৮) পিতাঃ আঃ রব মোল্লা,
সাং বিল সুন্দরপুর,থানাঃ কালুখালী,জেলাঃ রাজবাড়ী।

১০.মোঃ আলমগীর(১৮) পিতাঃ মোঃ মোকছেদ আলী মন্ডল, সাংঃ তালুকপাড়া থানাঃ বালিয়াকান্দি জেলাঃ রাজবাড়ী।

অভিযুক্ত সদস্যরা দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করে তাদের ফেসবুক আইডি হ্যাক সহ বিভিন্ন ডিজিটাল হ্যাকিং কার্য পরিচালনা করে আসছে।

২৯ আগষ্ট ২০২০ রাত ৯টার দিকে শ্রীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আলী আহম্মেদ মাসুদ (বিপিএম) সাংবাদিকদের জানান, ইংরেজি ২৯/০৮/২০২০ তারিখ গভীর রাতে সংবাদ আসে একটি সংঘবদ্ধ হ্যাকিং চক্র মাগুরা শ্রীপুরের চর চৌগাছী এলাকায় মানুষের মোবাইল নাম্বার ফেসবুক হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে প্রতারনা করে টাকা পয়সা হাতিয়ে নিচ্ছে।

উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে আমার নেতৃত্বে, এস আই জাহাঙ্গীর হোসেন,এস আই রাসেল এর সহযোগিতায় শ্রীপুর থানা পুলিশের চৌকস একটি টিম নিয়ে গভীর রাতে ঐ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করি। অভিযান চলাকালে এই গ্রূপের দলনেতা মহিদুলসহ রাজবাড়ি থেকে আগত কিছু সদস্য সর্বমোট ১০ জনকে ৯ টি ডেস্কটপ, ৯ টি সি পি ইউ, ১০ টি মোবাইল, ৭ টি হার্ডডিস্ক ও ১ টি মডেল উদ্ধার করি এবং তারা যেহেতু তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী এই ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্ট সেই কারনে ডিজিটাল আইনে একটি মামলা রুজু করি। যার মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *