মাগুরার বাণী

চার দফা দাবিতে যবিপ্রবি ছাত্রলীগের স্মারকলিপি

চার দফা দাবিতে যবিপ্রবি ছাত্রলীগের স্মারকলিপি

যবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ

শিক্ষার্থীদের সেমিস্টার ফি’র উপর ৫০ শতাংশ ছাড় প্রদান, যাবতীয় বর্ধিত ও বিলম্বিত জরিমানা মওকুফসহ চার দফা দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান করেছে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (যবিপ্রবি) শাখা ছাত্রলীগ। আজ বুধবার বেলা ১১ ঘটিকায় বিশ্বদ্যিালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সম্মেলন কক্ষে যবিপ্রবি উপাচার্যের নিকট স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

স্মারকলিপিতে জানানো হয়, শিক্ষার্থীদের সেমিস্টার ফি’র উপর কমপক্ষে ৫০ শতাংশ ছাড় প্রদান, যাবতীয় বর্ধিত ও বিলম্বিত জরিমানা মওকুফ, অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীদের অনলাইন ক্লাসে অংশগ্রহনের স্বার্থে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ ও অনলাইন ক্লাসে নেট ক্রয় ব্যয় বহুল হওয়ায় রুটিন মাফিক ক্লাস গ্রহণে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার দাবি জানানো হয়।

বৈশ্বিক মহামারী করোনার কারণে দেশের সকল প্রতিষ্ঠান গত ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ রয়েছে। যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ও এর ব্যতিক্রম নয়। দীর্ঘ এ ছুটিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকাংশ শিক্ষার্থী আর্থিক, মানসিক, চিকিৎসাজনিত, সামাজিক ও অনলাইন ক্লাস সংক্রান্ত সমস্যায় দিনানিপাত করছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি বিভাগে সেমিস্টার ভিত্তিতে উন্নয়ন ফি গ্রহন করা হয় যা বিভিন্ন রকম সহপাঠ্য কার্যক্রম ও আনুষঙ্গিক খাতে ব্যয় হয়ে থাকে। বিদ্যমান বাস্তবতা ও শিক্ষার্থীদের চলমান সঙ্কটের আলোকে চলতি বছরে শিক্ষাবর্ষে উন্নয়ন ফি গ্রহণ শিক্ষার্থী স্বার্থের পরিপন্থি। পাশাপাশি মহামারী করোনাকালীন সময়ে দীর্ঘদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার কারণে সহপাঠ্য কার্যক্রম পরিচালনা সম্ভবপর না হওয়ায় চলতি সেমিস্টারে উন্নয়ন ফি গ্রহণ কোনোভাবে যৌক্তিক নয়।

স্মারকলিপি প্রদানের সময় যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, তোমাদের দাবিগুলো অত্যন্ত যৌক্তিক এবং শিক্ষার্থীবান্ধব। এ দাবিগুলো পর্যালোচনা করে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আশা করি, প্রশাসনের গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ তোমাদেরও পছন্দ হবে। অনলাইন ক্লাসের সময়সূচি বিপর্যয়ের বিষয়ে শিক্ষার্থীদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিন, চেয়ারম্যানদের সাথে আমি কথা বলব। শিক্ষকদের প্রতি আমার আহ্বান থাকবে, যখন তাঁরা ক্লাসের নেওয়ার সময় দেবেন, তখনই যেন ক্লাস নেন। শিক্ষার্থীদের আর্থিক অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে সেমিস্টার ফি যৌক্তিক পর্যায়ে মওকুফের বিষয়ে অচীরেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করেন তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন যবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আফিকুর রহমান অয়ন, শহীদ মসিয়ূর রহমান হল ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা ও নাজমুস সাকিব, ইংরেজি বিভাগ ছাত্রলীগ সভাপতি রুহুর কুদ্দুস রোহিত, পিএমই বিভাগ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশিক খন্দকার, কামরুল হাসান শিহাব, আল আমিন, নুসরাত ফেরদৌসী লিয়া, ফাহিম মোর্শেদ, সাব্বির হোসেন, জাহিদ হাসান, জুয়েল রানাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীবৃন্দ।

শেয়ার করুন
  •  
    99
    Shares
  • 99
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *